অন্তরঙ্গ ভিডিও করে ব্ল্যাকমেইল, ৬৬ জনকে ধর্ষণ ডেলিভারি ম্যানের!

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

অনলাইন সংস্থার জিনিস ডেলিভারি ম্যান। পণ্যের মান নিয়ে মন্তব্য নেওয়ার ছলে প্রথমে নারীদের ফোন করে ভাব জমান তিনি। এরপর ভিডিও কলে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি জমিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে ধর্ষণ। এমন গুরুতর অভিযোগে বিশাল নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ডেলিভারি বয়ের বিরুদ্ধে অন্তত ৬৬ জন মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

আটককৃতের নাম বিশাল বর্মা। তার এক বন্ধু সুমনকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। হুগলির ব্যান্ডেলের ওই দুই যুবককে গত শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল রবিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) তাদের আদালতে তোলা হয়। বিচারক দুই অভিযুক্তকে পাঁচ দিন পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, অভিযুক্ত বিশাল বর্মা পেশায় একটি অনলাইন বিপণির ডেলিভারি বয়। তার বিরুদ্ধেই এমন চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছে।

পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, বিশাল পণ্য পৌঁছে দেওয়ার পর ফিডব্যাক নেওয়ার নামে নারীদের ফোন নম্বর সংগ্রহ করত। তার পর নানা কৌশলে তাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব তৈরি করতো। এর পর বিভিন্ন সময়ে ভিডিও কল করে নানা মুহূর্তের ছবির স্ক্রিনশট জমিয়ে রাখতো। সুযোগ বুঝে সেই সব ছবি দেখিয়ে নারীদের ব্ল্যাকমেইল করে ধর্ষণ করতো বলে অভিযোগ।

এমন অভিযোগে গত শনিবার রাতে সুমন নামে তার এক বন্ধুসহ তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রবিবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদেরকে ৫ দিন পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন।

দেশটির সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, সম্প্রতি চুঁচুড়ার এক গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে বিশালের ধর্ষণের ঘটনা পুলিশ জানতে পারে।

ওই নারীর অভিযোগ, এমন ফাঁদে ফেলে বিশাল তাকেও ধর্ষণ করে। সেই সঙ্গে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে তার গয়নাও হাতিয়ে নেয়। ওই নারীর আরও দাবি, বিশাল সেই সময় তাকে জানায়, যে তিনি তার ৬৬তম ‘শিকার’।

গত শনিবার রাতে চুঁচুড়া থানার কর্মকর্তা তীর্থসারথি হালদারের নেতৃত্বে একটি দল ব্যান্ডেলের কেওটার ত্রিকোণ পার্কে অভিযান চালায়। বিশালের বাড়িতে ঢুকে তাকে এক নারীর সঙ্গে দেখতে পায় পুলিশ।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.