‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলায় নির্মাতা ঝন্টুকে যা বললেন দীঘি

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

রাজধানীর ৬টি সহ দেশের মোট ২৫ সিনেমা হলে আজ মুক্তি পেয়েছে দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত সিনেমা ‘তুমি আছো তুমি নেই’। এ সিনেমার মধ্য দিয়ে নায়িকা হিসেবে অভিষেক ঘটেছে শিশুশিল্পী হিসেবে তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া দীঘির। ছবির ট্রেলার হতাশ করে দর্শকদের। এদিকে সিনেমাটি মুক্তির আগে এক সাক্ষাৎকারে দীঘিকে ‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলে উল্লেখ করেছিলেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। গত ১১ মার্চ এক সাক্ষাৎকারে ঝন্টু বলেছিলেন, ‘ওর কথা শুনে মনে হয় মেয়েটা মোটামুটি লেখাপড়া করছে। সুন্দর সুন্দর ইংরেজি শব্দগুলো ব্যবহার করে। জ্ঞান নেই তার, জ্ঞান থাকলে নিজের ছবি চলবে না এই কথা কেউ বলে!’

একটু দেরিতে হলেও চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর কটাক্ষের জবাব দিলেন একসময়ের জনপ্রিয় শিশুশিল্পী ও বর্তমানের নায়িকা প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। তাকে ‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলেছিলেন নির্মাতা ঝন্টু। সম্প্রতি একটি টিভি চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে হাজির হয়ে সেই কটাক্ষের জবাব দিয়েছেন শিশুশিল্পী হিসেবে তিনটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী এই অভিনেত্রী। এ নিয়ে দেওয়া তার সাক্ষাৎকার দেখে ক্ষিপ্ত হন চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। তিনি দীঘির কঠোর সমালোচনাও করেছিলেন। ক্ষিপ্ত হয়ে দীঘিকে ‘দুই পয়সার মেয়ে’ বলেছিলেন নির্মাতা ঝন্টু। সম্প্রতি একটি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন দীঘি।

সাক্ষাৎকারে দীঘি বলেন, আমি ছবি নিয়ে কোনো কথা বলিনি। ঝন্টু আঙ্কেল গুরুজন, তাকে অনেক সম্মান করি। তিনি আমার ফ্যামিলি নিয়ে কিছু কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, পরিবার আমাকে শিক্ষা দিতে পারেনি। তারা আমাকে বাজে আইডিয়া দিচ্ছে। এটার পিছনে নাকি কারও হাত আছে! সবচেয়ে বড় কথা আমার মামাকে টেনে আনা হয়েছে। তিনি শোবিজের কেউ না। তিনি শুধুই আমার মামা, ভালো বন্ধু, অভিভাবক। বিতর্কের মধ্যে মামাকে টেনে আনা হয়েছে, তার নামে মামলা দিতে চাচ্ছে। ঝন্টু আঙ্কেল আমাকে দুই পয়সার মেয়ে বলেছেন। আমরা কাউকে এভাবে সম্বোধন করতে পারি না।

দীঘি আরও বলেন, এসব আলোচনা ছবি পর্যন্ত ঠিক ছিল। ব্যক্তিগতভাবে ঝন্টু আঙ্কেল আমাকে এভাবে আক্রমণ করে কথা বলতে পারেন না কোনোভাবেই। এতে আমি খুবই অ্যাবিউজ ফিল করেছি। খুব বেশি আঘাত পেয়েছি। উনার সাথে আর কী কথা বলবো? কীভাবেই বা কথা বলবো? প্রথমত তারা আমাদের সাথে কেউই যোগাযোগ করছে না। উনি পরিবার নিয়ে কেন কথা বললেন? উনি আমাকে দুই পয়সার মেয়ে কোন হিসেবে বললেন। আমি এমন কোনো পরিবারের সদস্য নই যে আমাকে কিছু বললে আমার আশেপাশের মানুষ চুপ থাকবে!

এর আগে, নায়িকা দীঘি, তার বাবা সুব্রত চক্রবর্তী ও মামার বিরুদ্ধে এক কোটি টাকার মানহানির মামলা করেছেন বলে দাবি করেন নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। উল্লেখ্য, নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর সর্বশেষ ছবি ‘তুমি আছো তুমি নেই’-এর ট্রেলার প্রকাশ্যে আসতেই সমালোচনা শুরু হয়। দর্শকরা মানহীন গল্প ও নির্মাণের অদক্ষতার অভিযোগ তুলেছেন ট্রেলারটি নিয়ে। দুই মিনিট ৩২ সেকেন্ডের এই ঝলকে জনপ্রিয় শিশুশিল্পী থেকে নায়িকা হওয়া দীঘিও হয়েছেন সমালোচিত। এতে বিব্রত হয়ে দীঘি এক সাক্ষাৎকারে গণমাধ্যমে দাবি করেন, ‘ছবিটি বেশ মানহীন। সিনেমাটি চলবে না।’ তার এমন মন্তব্যের জেরে বেজায় চটে যান ছবির নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু।

এর আগে শ্যামলী সিনেমা হলের দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যানেজার মোহাম্মদ হাসান গণমাধ্যমকে বলেন, নতুন সিনেমার প্রতি দর্শকের সবসময়ই একটু বেশি আগ্রহ থাকে। যার কারণে ‘তুমি আছো তুমি নেই’ সিনেমাটি আমরা চালাতে শুরু করি। কিন্তু হতাশ হলাম। যেমনটা আশা করেছিলাম তেমন দর্শক এখনো পাইনি। দুপুরের একটি শো চালিয়েছি যেখানে দর্শক ছিলো না তেমন। হয়তো ৩০/৪০ এর জনের মত হবে। এরপরের শো শুরু হয়েছে কিছুক্ষণ আগে। এই শোতে কিছু দর্শক আছে কিন্তু আশানুরূপ না। ৩০৬ আসনের হলে যদি এত কম দর্শক হয় তাহলে সিনেমা চালানোই কঠিন হয়ে পড়বে। তিনি আরও বলেন, করোনার কারণে অনেক দিন হল বন্ধ ছিলো। এমনিতেই অনেক টাকা ক্ষতি হয়েছে। এখন যদি আবার সিনেমা হল বন্ধ করে দেই তাহলে তো দর্শকরা আতংকে পড়বে। ২/৩ জন দর্শক হলেও সেটা দিয়েই ছবি চালিয়েছি এরমধ্যে। এখন এই সিনেমারও যদি এমন অবস্থা হয় তাহলে তাই-ই করতে হবে, কিছু করার তো নেই। একটা নতুন সিনেমা আগ্রহ নিয়ে চালালাম সেটা তো নামিয়েও ফেলতে পারিনা!

হতাশার সুরে হলের এই ব্যবস্থাপক বলেন, এমন অবস্থায় হল চালানোই যাচ্ছে না। হলের ব্যবস্থাপনা, কর্মচারী তাদেরকে টাকা-পয়সা দিতেই হিমসিম খেতে হচ্ছে। সিনেমা থেকে বিদ্যুৎ বিলের টাকা-ই উঠছে না। ক্ষতি হলেও হলের মালিক (এম এ হাফিজ) তার নিজস্ব অর্থায়ন থেকে কর্মচারী ও হলের সবকিছুর বিল পরিশোধ করছেন। সিনেমা থেকে টাকা উঠছেই না। এখন দেখা যাক কী হয়! করোনার কারণে প্রায় ৮ মাস বন্ধ ছিলো দেশের সব সিনেমা হল। গেল বছরের অক্টোবর মাসে বেশ কিছু সিনেমা হল খুললেও খুলেনি শ্যামলী সিনেমা হল। এরপর ‘বিশ্বসুন্দরী’ সিনেমা দিয়ে দীর্ঘ সময় পর খুলেছিলো হলটি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.