১০ কোটি টাকার প্রস্তাব পেয়েও দেশের সাথে বেঈমানি করিনি মাশরাফি

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বাংলাদেশ জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা দেশের হয়ে সব সময় লড়ে গেছেন। এই তারকা ক্রিকেটার এখনো ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করেননি। আর এই তারকা ক্রিকেটার দীর্ঘদিন বাংলাদেশ জাতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন। এমনকি তাকে এখন পর্যন্ত দেশের অন্যতম সফল অধিনায়ক হিসেবে ধরা হয়। আর এই তারকা ক্রিকেটার অধিনায়কত্ব ছাড়লেও এখনো তিনি খেলা থেকে অবসরের ঘোষণা দেননি। তবে এরপরও প্রায় সময় এই টাইগার সুপারস্টার কে নিয়ে বেশ আলোচনা দেখা দেয়।

বার বার অবসরের আলোচনায় আসলেও অবসর নিয়ে ক্রিকেট থেকে চাপ প্রয়োগ করেছে এমন কখনো বলেননি মাশরাফি। বরং সব সময় বোর্ডের প্রসংশা করেছেন তিনি।

সম্প্রতি ক্রিকেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট ’ক্রিকবাজকে’ সে সময়ের কিছু গল্প শুনিয়েছেন মাশরাফি। এ সময় মাশরাফি বলেন, ’পাপন ভাই (বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন) আমার সাথে এটি (অবসর) নিয়ে কথা বলেছে। তিনি আমাকে আরও বলেছেন শুধু আমার সাথেই কথা বলবেন এই ইস্যুতে অন্য কারও সাথে নয়।’

তিনি বলেন, ’সে বারবার আমাকে ফোন করে সিদ্ধান্ত নিতে বলেন। আমি তাকে বলেছি বিপিএল পর্যন্ত খেলতে চাই। এরপর তিনি গণমাধ্যমে গিয়ে বলেছেন। আমার স্পষ্ট মনে আছে তিনি সবাইকে রুম ছেড়ে যেতে বলেছেন কারণ আমার সাথে একান্তে কথা বলতে চেয়েছেন। এ ক্ষেত্রে তিনি আমাকে বেশ সম্মান দিয়েছেন।

পাপনের এমন বার বার ফোনেও কখনো কষ্ট পাননি মাশরাফি। তবে মাশরাফির কষ্টের জায়গাটা আসলে কোথায়? তিনি বলেন, সমস্যাটা হল যারা সেখানে ছিল তারা গুজব ছড়িয়েছে। আমার ও পাপন ভাইয়ের মধ্যে কি আলোচনা হয়েছে তা তারা কেউই জানতনা। তারা আমার বেতন নিয়ে কথা বলেছে, জিজ্ঞাসা করে কেন বোর্ড কোন বিনিময় ছাড়া কাউকে কিছু দিয়ে দিবে? আমি কি ১৮ বছর ধরে টাকার জন্য ক্রিকেট খেলেছি? যদি টাকার কথা চিন্তা করতাম আমার অনেক সুযোগ ছিল।

টাকার জন্য ক্রিকেট খেলেন না উল্লেখ করে মাশরাফি আরও বলেন, ’আমি টাকার জন্য ক্রিকেট খেলিনি। সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার হল তারা এমনভাবে গুজব ছড়িয়েছে যেন বিশ্বকাপে বাংলাদেশ সাড়ে ৯ জন নিয়ে খেলেছে। আপনি কি মনে করেন আমি এটার প্রাপ্য? হতে পারে বোর্ড আমাকে আরও ভালো বিদায় দিতে চেয়েছে। তবে আপনাকে আমার দিকটাও দেখতে হবে। আমার শ্রীলঙ্কা যাওয়া নিয়েও কথা হয়েছে, চোটে না পড়লে আমি শ্রীলঙ্কা সফরেও যেতাম।

মাশরাফি বলেন, আমি শুধু জানি আমি আমার জীবনটা ক্রিকেটের জন্যই সঁপে দিয়েছি এমনকি নানা কষ্টে হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে বারবার তবুও ক্রিকেটই আমার সব। টাকাই যদি মাণদন্ড হত চোটে পড়ে ক্যারিয়ার শঙ্কায় পড়েছে অনেকবার তখনই কিন্তু ভিন্ন কিছু করতে পারতাম। ১০ কোটি টাকার প্রস্তাব পেয়েও আইসিএল খেলতে যাইনি। আমি আমার জীবন দিয়ে ক্রিকেট খেলেছি। হয়তো বড় কোন খেলোয়াড় হতে পারিনি কিন্তু নূন্যতম সম্মান আশা করতে পারি।  সূত্র: bd24report উল্লেখ্য, বাংলাদেশ জাতীয় দলের এই তারকা ক্রিকেটারের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করে সব থেকে বেশি ম্যাচে জয়লাভ করেছে। আর অধিক ম্যাচেই তার পারফরমেন্স অনেক ভালো ছিল।  এই তারকা ক্রিকেটার সব সময় দেশের জন্য হয়ে খেলেছেন। যার কারণে তিনি দেশের কথা ভেবে অন্য কোথাও খেলার কথা ভাবেনি।  আর সেই কথাই তিনি দীর্ঘদিন পর তুলে ধরেছেন।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.